• বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৪১ পূর্বাহ্ন |
  • English Version

(আপডেট) স্মার্ট দেশ গড়তে হলে নতুন প্রজন্মকে স্মার্ট করে গড়ে তুলতে হবে…… নাজমুল হাসান পাপন এমপি

# মিলাদ হোসেন অপু :-
২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে স্মার্ট দেশ হিসেবে রূপান্তর করতে হবে। ২০২৬ সালের মধ্যে দেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে। দেশকে স্মার্ট করতে হলে দেশের নতুন প্রজন্মের যুবসমাজ ও যুব মহিলাদের স্মার্ট করে গড়ে তুলতে হবে। ২৪ ফেব্রুয়ারি শনিবার কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে থানা সংলগ্ন খেলার মাঠে এক নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই কথাগুলো বলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী আলহাজ্ব নাজমুল হাসান পাপন এমপি।
তিনি আরো বলেন, এবারের নির্বাচন অনেক কঠিন ছিল। আমি বা যারা পাশ করেছে সেটা তাদের নির্বাচন নয়। একটি অবাদ সুষ্ঠু নির্বাচন উপহার দেশে শুধু দেশ নয় আন্তর্জাতিক চ্যালেঞ্জ ও বিদেশী চক্রান্ত মোকাবেলা করে এই নির্বাচন সফল করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী যত ধরণের প্রতিশ্রুতি আমাদের দিয়েছে সবগুলো পূরণ করেছেন।
নতুন প্রজন্মের যুবসমাজ ও যুব মহিলাদের স্মার্ট করে গড়ে তুলতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের অনেক সুযোগ করে দিয়েছেন। কুলিয়ারচরের যে দাবীগুলো আছে সেগুলো আমি পূরণ করবো তবে কুলিয়ারচরকে আমি নিজের মতো করে সাজাবো। মন্ত্রী হওয়ার পরের দিন আমি বেক্সিমকো থেকে পদত্যাগ করেছি। পরে পর্যায়ক্রমে আরো আটটি কোম্পানী থেকে পদত্যাগ করেছি। আমি ভৈরব-কুলিয়ারচরের মানুষের পাশে থাকতে চাই। ভৈরব-কুলিয়ারচরের যুবসমাজ ও যুব মহিলাদের উন্নয়নে কাজ করবো। তারা শুধু প্রশিক্ষণে নয় দেশে উন্নয়নে অংশীদার হতে পারে তেমন ভাবে গড়ে তুলবো।
কুলিয়ারচর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ইমতিয়াজ বিন মুছা জিসানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মন্ত্রী নাজমুল হাসান পাপনের সহধর্মিনী বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস এর নির্বাহী পরিচালক রোকসানা হাসান, কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আফজাল হোসেন, কুলিয়ারচর উপজেলা আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি আবুল হোসেন লিটন, পৌর মেয়র সৈয়দ হাসান সারওয়ার মহসিন প্রমুখ।
উপজেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. জসীম উদ্দিন লিটন ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সদস্য হাবিবুল্লাহ কামালের সঞ্চালনায় নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুস সাত্তার মাস্টার, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. জিল্লুর রহমান, উপজেলা পরিষদ ভাইস-চেয়ারম্যান সৈয়দ নূরে আলমসহ ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ, উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
আলোচনার শুরুতে কুলিয়ারচরের উন্নয়নে সার্বিক বিষয় ও বিভিন্ন দাবী নিয়ে একটি মানপত্র পাঠ করেন আওয়ামী লীগ নেতা সুশান্ত ভৌমিক। এর আগে কুলিয়ারচর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ মাননীয় মন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। আলোচনা শেষে দেশবরেণ্য শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *