• বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন |
  • English Version
শিরোনাম :
জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ভৈরবে এতিম ও গরীব শিশুদের সুন্নাতে খাৎনা বিএডিসির দূরত্ব বিধান অমান্য করে প্রতিবেশির সেচের সীমায় সেচ প্রকল্প হোসেনপুরে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে স্মার্ট কার্ড ও ডিজিটাল সনদ বিতরণ কিশোরগঞ্জের ঈশাঁখা বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা কিশোরগঞ্জে জাতীয় শোক দিবসে গণতন্ত্রী পার্টির জেলা কার্যালয়ে শোকসভা তাড়াইলে যথাযোগ্য মর্যাদার মধ্য দিয়ে জাতীয় শোক দিবস উদযাপিত হয়েছে সরকারি চাকরিজীবীদের নির্বাচন করার বিধানের রিট খারিজ কুলিয়ারচরে রাস্তার পাশে ঘর নির্মাণকে কেন্দ্র করে এক বাড়িতে হামলা, আহত ৩ কিশোরগঞ্জে অশোক-ঝুমু স্কুল এন্ড কলেজে জাতীয় শোক দিবসে আলোচনা কিশোরগঞ্জে ১২ কেজি গাঁজা নিয়ে ৬ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

কিছু অসাধু ব্যবসায়ী তথ্য প্রযুক্তির সুযোগে অর্থ আত্মসাত করেছেন—–রাষ্ট্রপতি

কিশোরগঞ্জে বক্তব্য রাখছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। -ছবি : পিআইডি

কিছু অসাধু ব্যবসায়ী
তথ্য প্রযুক্তির সুযোগে
অর্থ আত্মসাত করেছেন
                        —–রাষ্ট্রপতি

# নিজস্ব প্রতিবেদক :-

কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন গণপূর্ত বিভাগের ৫ একর জায়গার ওপর নির্মিত হচ্ছে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ প্রধান অতিথি হিসেবে বুধবার বিকালে এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন। এরপর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে জেলা শিল্পকলা মিলনায়তনে এর ওপর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় রাষ্ট্রপতি বলেছেন, ডিজিটাল প্রযুক্তিতে আমরা অনেক কাজ করতে পারছি। বিশেষ করে করোনাকালে ই-কমার্সের মাধ্যমে ব্যবসা বাণিজ্য ভালভাবেই হয়েছে। তবে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী জনগণের টাকা আত্মসাত করেছেন। আবার নিম্নমানের পণ্য সরবরাহেরও অভিযোগ রয়েছে।
তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন স্বপ্ন নয়, বাস্তব। ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে যুব সমাজ ঘরে বসে ডলার আয় করতে পারছে। যুব সমাজ এই প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে পারে। সরকারের দায়িত্ব হলো সুযোগ তৈরি করে দেওয়া। আর জনগণের দায়িত্ব হলো এই সুযোগের সদ্ব্যবহার করা। আজ আমাদের সামনে চতুর্থ বিপ্লবে নেতৃত্ব দেয়ার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেন, জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানই প্রথম ১৯৭৫ সালের জুন মাসে বেতবুনিয়া উপগ্রহ ভূকেন্দ্র স্থাপনের মাধ্যমে তথ্য প্রযুাক্তর সূচনা করেছিলেন। আজ দেশের ১২ কোটিরও বেশি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। তবে সফটওয়্যারের পাশাপাশি হার্ডওয়্যার উৎপাদনের দিকেও জোর দেয়ার জন্য তিনি সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। এছাড়া ইন্টারনেট এবং বিভিন্ন ডিজিটাল ডিভাইসের দাম কমানোর ওপরও গুরুত্বারোপ করেছেন। তিনি আরও বলেন, শিক্ষা ও কর্ম দু’টি পরস্পর সম্পর্কিত। কাজ ছাড়া কেবল শিক্ষা থাকলে মানুষ বিপথগামী হতে পারে। এক ধরনের অভিজাত শিক্ষিত বেকার তৈরি হবে। আইসিটি খাত কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছে। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে দেশ ৫ বিলিয়ন ডলারের রপ্তানি বাণিজ্য করতে সক্ষম হবে বলেও রাষ্ট্রপতি আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। তখন এই খাতের আয় জিডিপিতে ৫ ভাগ অবদান রাখবে বলেও রাষ্ট্রপতি মন্তব্য করেছেন।
সভাপতির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করে চলেছেন। তবে এটি প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়ের ‘ব্রেইন চাইন্ড’। মন্ত্রী বলেন, দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে শেখ রাসেল কম্পিউটার ল্যাব হয়েছে। দেশের ৬৪ জেলায় শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার নির্মাণ হবে। বর্তমানে দেশের ৩৬টি জেলায় এর নির্মাণ কাজ চলছে। কিশোরগঞ্জে ১০০ কোটি টাকা ব্যয়ে ৭ তলাবিশিষ্ট শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার নির্মাণ হবে। তিনি চলতি বছরেই কিশোরগঞ্জ জেলার ১০৮টি ইউনিয়নে হাইস্পীড ব্রডব্যান্ড সংযোগ দেয়া হবে বলে ঘোষণা দেন। তিনি রাষ্ট্রপতিকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান এই বলে যে, রাষ্ট্রপতির ব্যক্তিগত উদ্যোগেই এখানে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টারের কাজ হচ্ছে এবং তিনি বিনামূল্যে ৫ একর জায়গার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। যারা ঘরে বসে ডলার আয় করছেন, তাদেরকে মন্ত্রী ‘রেমিটেন্স যোদ্ধা’ বলে আখ্যায়িত করেছেন।
অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তা বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষ ছাড়াও বক্তব্য রাখেন বিশেষ অতিথি কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের এমপি, ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, কিশোরগঞ্জ-১ আসনের এমপি, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি এবং বাংলাদেশ ডিজেল প্লান্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রি. জেনারেল সৈয়দ মো. রকিবুল ইসলাম এসপিপি। অনুষ্ঠানে লার্নিং এন্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের আওতায় কয়েকজন ফ্রিল্যান্সার উদ্যোক্তাকে বিনামূল্যে ল্যাপটপ উপহার দেয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, জনবিভাগের সচিব ওয়াহিদুল ইসলাম খান, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এসএম সালাহ উদ্দিন, সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ মো. সায়েদুর রহমান খান, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম, পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার), জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান, প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট কামরুল আহসান শাহজাহান, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমএ আফজল, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. হাবিবুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. সাইফুল ইসলাম, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক মো. হাবিবুর রহমান, সরকারি গুরুদয়াল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর জামিলুর রহমান, সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. গোলাম মোস্তফা, জেলা গণতন্ত্রী পার্টির সভাপতি অ্যাডভোকেট ভূপেন্দ্র ভৌমিক দোলন, পৌর মেয়র মাহমুদ পারভেজ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি প্রিন্সিপাল অ্যাডভোকেট এমএ রশিদ, রাষ্ট্রপতির সহপাঠী অ্যাডভোকেট এমএ মালেক ভূঁইয়া ও অ্যাডভোকেট ওমর ফারুক, সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী রিতেশ বড়ুয়া, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী আমিরুল ইসলাম, শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সাইফুল ইসলাম, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. বাহাদুর আলী, জেলা বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট মিয়া মো. ফেরদৌস, পিপি অ্যাডভোকেট শাহ আজিজুল হক, জিপি অ্যাডভোকেট বিজয় শংকর রায়, ওয়ালি নেওয়াজ খান কলেজের অধ্যক্ষ মো. আল আমিন, রোভার অঞ্চলের সহ-সভাপতি প্রফেসর রবীন্দ্রনাথ চৌধুরী, সদর উপজেলার চেয়ারম্যান মামুন আল মাসুদ খান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, সংরক্ষিত আসনের সাবেক এমপি দিলারা বেগম আছমা ও জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান মানছুরা জামান নূতনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা নিষেধ!!!