• বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৮:৫২ পূর্বাহ্ন |
  • English Version
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে নতুন করোনা রোগি ১৩, সুস্থ হলেন ১৯ জন লকডাউন প্রাকৃতিক বিধান কিশোরগঞ্জে করোনা সঙ্কটে বিপর্যস্তদের সঙ্গে অভিনব ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি ভৈরবে এতিম ও পথশিশুদের মাঝে জামা কাপড় ও খাবার বিতরণ করলেন ছাত্রলীগ সভাপতি প্রভা হোসেনপুরে ঝড়ে বিধ্বস্ত কুঁড়ে ঘরটি সংষ্কারের জন্য ঢেউটিন প্রদান কিশোরগঞ্জ ৩৫ জন স্বেচ্ছাসেবী স্বাস্থ্যকর্মীকে আর্থিক ঈদ উপহার পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষ্যে ভৈরব উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজানার ঈদ শুভেচ্ছা হোসেনপুরে আলোকিত সামাজিক সংঘের উদ্যোগে দরিদ্রদের মধ্যে ঈদ সামগ্রী বিতরণ কুলিয়ারচরে রাবেয়া-হামিদ মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার পেলো ১৫০টি পরিবার কিশোরগঞ্জে সুস্থ হলেন ৪০ জন নতুন করোনায় আক্রান্ত ২ জন

ডেপুটি সিভিল সার্জনের বাবা স্ত্রীসহ ৩ সন্তান সংক্রমিত, কিশোরগঞ্জে ৪ মাস ৭ দিন পর একদিনে চিকিৎসাধীন রোগি শতক টপকালো

ডেপুটি সিভিল সার্জনের বাবা
স্ত্রীসহ ৩ সন্তান সংক্রমিত
কিশোরগঞ্জে ৪ মাস ৭ দিন
পর একদিনে চিকিৎসাধীন
রোগি শতক টপকালো

# মোস্তফা কামাল :-

কিশোরগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. মোস্তাফিজুর রহমানের গতকাল করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ার পর আজ ২৩ এপ্রিল মঙ্গলবার তার বাবা, স্ত্রী ও ৩ সন্তানের করোনা ধরা পড়েছে। অন্যদিকে ৪ মাস ৭ দিন পর একদিনে করোনায় চিকিৎসাধীন রোগির সংখ্যা আজ ২৩ মার্চ মঙ্গলবার শতকের ঘর টপকালো। ৫ জন সুস্থ হলেও ১২ জন নতুন রোগি শনাক্ত হওয়ার মধ্যে দিয়ে আজ জেলায় চিকিৎসাধীন রোগির সংখ্যা দাঁড়ালো ১০৬ জনে। গত বছর ১৬ নভেম্বর সর্বশেষ একদিনে চিকিৎসাধীন রোগি ছিল শতকের ওপরে, অর্থাৎ ১০৪ জন। পরদিন ১৭ নভেম্বর ৫ জন নতুন রোগি ও ২০ জন সুস্থ হওয়ার মধ্যে দিয়ে একদিনে চিকিৎসাধীন রোগির সংখ্যা নেমে আসে ৮৯ জনে। এভাবে শতকের নীচে থাকতে থাকতে একদিনে চিকিৎসাধীন রোগির সংখ্যা সর্বশেষ গত ১৩ ফেব্রুয়ারি নেমেছিল সর্বনিম্ন ৭ জনে। পরদিন থেকে আবার সংক্রমণ বাড়তে থাকে। আর আজ জেলায় রোগির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০৬ জনে।
সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান জানিয়েছেন, আজ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে ৭৫টি নমুনা পরীক্ষায় সদরে ৭ জন আর ভৈরবে ৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. মোস্তাফিজুর রহমানের বাবা, স্ত্রী এবং তিন সন্তানের করোনা ধরা পড়েছে। নেগেটিভ হয়েছে ৬৩টি নমুনা। আর বাজিতপুর ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে পরীক্ষা করা ৪৪টি নমুনাই নেগেটিভ হয়েছে। আজ সুস্থ হয়েছেন ভৈরবের ৫ জন। উপজেলাওয়ারি চিত্রে দেখা গেছে, আজ ভৈরবে ৪৮ জন, সদরে ২৬ জন, কটিয়াদীতে ৯ জন, পাকুন্দিয়া ও কুলিয়ারচরে ৫ জন করে, বাজিতপুর ও তাড়াইলে ৪ জন করে, অষ্টগ্রামে ৩ জন ও করিমগঞ্জে ২ জন চিকিৎসাধীন আছেন। আর আজ করোনামুক্ত আছে হোসেনপুর, নিকলী, ইটনা ও মিঠামইন।
আজ পর্যন্ত জেলায় করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩ হাজার ৭১৪ জন, আর সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৫ ৪২ জন। সুস্থতার হার শতকরা ৯৫ দশমিক ৩৭ ভাগ। আর মারা গেছেন মোট ৬৬ জন। সংক্রমণের তুলনায় মৃত্যুহার শতকরা ১ দশমিক ৭৮ ভাগ। আজ পর্যন্ত জেলায় করোনার টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন মোট এক লাখ ৩ হাজার ৩৬৮ জন, আর টিকা গ্রহণ করেছেন ৬০ হাজার ৩৬৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নিবন্ধন করেছেন ৩ হাজার ৩৭৮ জন, আর ২৪ ঘণ্টায় টিকা গ্রহণ করেছেন ৯৬৭ জন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা নিষেধ!!!