• বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:২৯ পূর্বাহ্ন |
  • English Version
শিরোনাম :
ভিক্ষা জীবন ছেড়ে কাজ ও বাসস্থান চান কুলিয়ারচরের হিজড়ারা ভৈরবের নির্ভীক নারী শারমিন আক্তার জুঁই স্বেচ্ছাশ্রমের অদম্য কোভিডযোদ্ধা সবাইকে সঙ্গে নিয়ে আরও শক্তিশালীভাবে এগিয়ে যাবে যায়যায়দিন …… এমডি কিশোরগঞ্জে ১২ থেকে ১৭ বছরের শিক্ষার্থীদের টিকা কার্যক্রম শুরু হলো হোসেনপুরে ইউপি নির্বাচনে সরে দাঁড়ালেন ১০ জন প্রার্থী রূপগঞ্জের হাসেম ফুডস লি. অগ্নিকাণ্ডে মারা যাওয়া ১৯ জনের পরিবারকে অনুদান কিশোরগঞ্জে ৪৫০ পিস ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক কিশোরগঞ্জে উদ্যোক্তাদের নিয়ে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্যোৎপাদন প্রশিক্ষণ র‍্যাবের হাতে ভারতীয় মালামালসহ এক চোরাচালানকারী আটক কিশোরগঞ্জে যানজট নিরসন সংক্রান্ত সভা ৬শ’ অটোর ৯টি রুট

ভাবীর মামলায় কারাগারে গিয়ে মায়ের করা মামলায় আসামি হলেন সিরাজুল

ভাবীর মামলায় কারাগারে
গিয়ে মায়ের করা মামলায়
আসামি হলেন সিরাজুল

# নিজস্ব প্রতিবেদক :-

কিশোরগঞ্জে সম্পত্তির বিরোধে ভাই ও ভাবীর ওপর হামলার ঘটনায় ভাবীর দায়ের করা মামলায় দেবর এখন কারাগারে। ওই দেবর তার মাকে মারধর করে তাদের বসত ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় বৃদ্ধা মা বাদী হয়ে আরও একটি মামলা করেছেন। তাতে মেয়েকেও আসামি করা হয়েছে।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার লতিবাবাদ ইউনিয়নের মুসলিমপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল হামিদের ছেলে আদালতের গাড়িচালক সাইফুল ইসলাম (৫০) ও তার স্ত্রী সরুফা খাতুনকে (৪৬) গত ২ জুলাই সরুফার দেবর সিরাজুল ইসলাম (৪৫) রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন এবং সরুফার শ্লীলতাহানি করেন। এ ঘটনায় সরুফা বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় সিরাজুলের বিরুদ্ধে পরদিন মামলা (নং ৩) করেন। পরে আদালত থেকে সিরাজুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলে গত ২১ নভেম্বর রোববার তাকে পুলিশ গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে।
এদিকে সাইফুল ও সিরাজুলের বিধবা মা হাসিনা খাতুন (৭৪) বাড়িতে সাইফুলের ঘরে বসবাস করতেন। গত ২৫ অক্টোবর বিকালে ছেলে সিরাজুল ও নিজের মেয়ে রেহেনা খাতুন (৪৮) তাদের মা হাসিনা খাতুনকে প্রচণ্ড মারধর করেন। আহত অবস্থায় বৃদ্ধাকে শহরের জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হয়। এরপর গত ১০ নভেম্বর গভীর রাতে বৃদ্ধা হাসিনা খাতুন প্রকৃতির ডাকে ঘর থেকে বাইরে গেলে তিনি ছেলে সিরাজুল ও মেয়ে রেহেনাসহ আরো কয়েকজনকে দলবদ্ধ দেখতে পান। এক পর্যায়ে তারা হাসিনার ঘরের বেড়ায় কেরোসিন ছিটিয়ে ঘরে আগুন ধরিয়ে দেন। ঘরটি সম্পূর্ণ ভষ্মীভূত হয়ে যায়। বৃদ্ধা হাসিনা ডাকচিৎকার দিলে তাকে ছোরা ধরে হত্যার হুমকি দেয়া হয়। এ ঘটনায় বৃদ্ধা হাসিনা সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলেন। মঙ্গলবার রাতে সেটি মামলা হিসেবে রেকর্ড (নং ২৩) করা হয়েছে। মামলায় ছেলে সিরাজুল ও মেয়ে রেহেনাকে আসামি করেছেন।
কয়েক বছর আগে বড়ভাই সাইফুলের ১০ বছরের ছেলে স্কুলছাত্র সাখাওয়াত হোসেন শরীফকে (১০) সিরাজুল অপহরণ করে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছিলেন বলেও জানা গেছে। এদিন বিকালেই ডিবি পুলিশ ভিকটিমসহ জহিরুলকে শহর থেকে আটক করে। এরপর সদর মডেল থানায় মামলা দিয়ে জহিরুলকে কারাগারে পাঠানো হয়। এছাড়া মাদকসহ গ্রেফতার হয়েও সিরাজুল একাধিকবার কারাগারে গেছেন বলে জানা গেছে। এদিকে সদর থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিকও পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে দুই ভায়ের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে প্রচণ্ড বিরোধ এবং সংঘাত চলে আসছে বলে জানিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা নিষেধ!!!