• মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:৩০ পূর্বাহ্ন |
  • English Version
শিরোনাম :
একই বিদ্যালয়ের দুই প্রধান শিক্ষক শহীদ বুদ্ধিজীবী বিদায়ী অধ্যক্ষ-সভাপতি দ্বন্দ্বে শিক্ষক-কর্মচারীর বেতন বন্ধ বাজিতপুরে বইয়ের কভারের আদলে বাড়ির সীমানা প্রাচীর দেখতে মানুষের ভিড় (আপডেট) স্মার্ট দেশ গড়তে হলে নতুন প্রজন্মকে স্মার্ট করে গড়ে তুলতে হবে…… নাজমুল হাসান পাপন এমপি বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা শরীফুল আলম কারামুক্ত কুলিয়ারচরে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী নাজমুল হাসানকে নাগরিক সংবর্ধনা ১২ কেজি গাঁজাসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার লায়ন মশিউর আহমেদ ওয়েশকা ইন্টারন্যাশনাল জাপান বাংলাদেশ ন্যাশনাল চ্যাপ্টার এর দ্বিতীয় ভাইস-চেয়ারম্যান নির্বাচিত ভৈরবে ১ সপ্তাহের ব্যবধানে দুই গৃহবধূ জন্ম দিলেন ৬ সন্তান ভৈরবে শিমুলকান্দি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের নবম বর্ষে পদার্পণে কেক কাটা ও সার্টিফিকেট বিতরণ

শৈশবের স্মৃতিকাতরতায় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ

শৈশবের স্মৃতিকাতরতায়
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ

# নিজস্ব প্রতিবেদক :-

নিজ জন্মমাটি মিঠামইনে এসে শৈশবের স্মৃতিকারতায় আবিষ্ট রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। উন্মুক্ত বিস্তীর্ণ হাওরে গিয়ে শিশুসুলভ ভঙ্গিমায় বসে পড়লেন রাস্তার কালভার্টের ওপর। দু’চোখ ভরে যেন দেখে নিলেন প্রাকৃতিক নৈসর্গিক হাওরের অপার মহিমা। এরই একটি দুর্লভ ছবি পিআইডি’র ওয়েবসাইটে দিলে সেখান থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।
মিঠামইনে ২৭ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে সপ্তাহব্যাপী ৩য় জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা স্কাউট ক্যাম্প। প্রধান অতিথি ও চীফ স্কাউট হিসেবে এই স্কাউট ক্যাম্প উদ্বোধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচীতে অংশ নিতে রাষ্ট্রপতি জেলায় ৫ দিনের সফরে রয়েছেন। গতকাল ২৮ মার্চ সোমবার সড়কপথে তিনি ইটনায় নির্ধারিত কর্মসূচীতে যাবার পথে মিঠামইনের হাওরে নেমে পড়লেন। এখানেই তো কেটেছে তার শৈশব। এখান থেকেই তিনি ৭ বার সংসদ সদস্য হয়েছেন। ফলে জীবন এবং জীবনের সাফল্যের বড় অংশ জুড়েই জড়িয়ে আছে এই হাওরাঞ্চল। রাষ্ট্রপতি হবার পর কিছু কঠোর নিয়মাবদ্ধতায় বাস করতে হয়। রাষ্ট্রীয় বিধান মেনে চলতে হয়। যে কোন সময় চাইলেই প্রকৃতির কাছে যেতে পারেন না। আবার দু’বছরের করোনাকালে এক ধরনের বদ্ধ বিচ্ছিন্ন জীবনে আটকে থাকতে হয়েছে। ফলে হাওরে গিয়ে যেন স্মৃতিকাতর হয়ে পড়লেন রাষ্ট্রপতি। বিশাল হাওরের মুক্ত বাতাসে নিজেকে কিছুটা সময়ের জন্য হলেও সমর্পন করে দিলেন। আর এখন তো চারপাশে রয়েছে দিগন্ত বিস্তৃত গাঢ় সবুজ বোরো ফসলের মাঠ। এরকম একটি নির্মল মোহনীয় পরিবেশ পেয়ে রাষ্ট্রপতির চেহারায়ও যেন চাপা উচ্ছ্বাস ফুটে উঠেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *