• বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন |
  • English Version

জিল্লুর রহমান পর্বতের মতো অটল থাকতে শিখিয়েছেন : মতিয়া চৌধুরী

# নিজস্ব প্রতিবেদক :-
জাতীয় সংসদের উপনেতা ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান দুঃসময়ে পর্বতের মতো অটল থাকতে শিখিয়েছেন। তিনি বলেন, প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান ছিলেন নির্লোভ, মিষ্টভাষী ও কর্মীবান্ধব সংগঠক। তিনি আমাদের কাছে এখনো অনুকরণীয়। নতুন প্রজন্মের কাছেও তার কর্ম ও জীবন তুলে ধরতে হবে।
আজ ২০ মার্চ সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, ভাষা সৈনিক ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানের দশম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
এই আলোচনা সভার আয়োজন করে মো. জিল্লুর রহমান মৃত্যুবার্ষিকী পালন কমিটি।কমিটির সভাপতি এম এ করিমের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব লায়ন মশিউর আহমেদ’র সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এডভোকেট নুরুল আমিন রুহুল এমপি, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আব্দুল আহাদ চৌধুরী ও আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য এডভোকেট বলরাম পোদ্দার।
মতিয়া চৌধুরী আরো বলেন, জিল্লু ভাই কম কথা বললেও কাজের কথা একটিও বাদ দিতেন না। ১/১১ সময়ে যখন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে সুধাসদন থেকে গ্রেপ্তার করা হয়, তখন জিল্লু ভাই ছিলেন হাইকোর্টে আমাদের একমাত্র ভরসা।
তিনি বলেন, নেত্রীকে গ্রেপ্তার করার দিন সারারাত টিভির সামনে বসেছিলাম। কী করা যায়, তা নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করেছি। পরদিন সকালে নেত্রীকে যখন কোর্টে নেয়া হয়, তখন কোর্ট এলাকা লোকে লোকারণ্য ছিল। পরে আদালত যখন তাকে কারাগারে রাখার আদেশ দেন তখন তিনি জিল্লুর রহমানকে দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব দেন। আইভি শূন্য জীবনেও তিনি দলের জন্য নিরলসভাবে পরিশ্রম করে গেছেন।
সংসদ উপনেতা বলেন, জিল্লুর রহমান যেকোনো সময়ে যেকোনো সংকটে দায়িত্ব নিতে পটু ছিলেন। কারণ তিনি বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর ছিলেন। তিনি পোড় খাওয়া রাজনীতিবিদ ছিলেন বলেই আজ তার সম্পর্কে এতো কথা বলছি। এখনো প্রধানমন্ত্রী প্রায়ই মিটিংয়ে বলেন, জিল্লু চাচা বেঁচে থাকলে বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ দিতে পারতেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *