• বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:০৩ অপরাহ্ন |
  • English Version
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে বিশ্ব এইডস দিবসে র‌্যালি আলোচনা ভৈরবে বর্ণাঢ্য আনন্দ আয়োজনে নিরাপদ সড়ক চাই এর ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন কিশোরগঞ্জে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলায় অংশ নেয়াদের পুরস্কার প্রদান হোসেনপুরে মাতৃমৃত্যু বিষয়ক সামাজিক পর্যালোচনা সভা কুলিয়ারচরে উন্নয়ন কাজের শুভ উদ্বোধন করেন আলহাজ্ব নাজমুল হাসান পাপন এমপি তাড়াইলে বিট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে দুনিয়ার জীবনে আল্লাহকে দেখা সম্ভব কী?দুনিয়ার জীবনে আল্লাহকে দেখা সম্ভব কী? সংকলনে : ডা. এ.বি সিদ্দিক ভৈরবে পুড়ে যাওয়া পাদুকা মার্কেট পরিদর্শন করলেন এমপি পাপন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ২০০ জন প্রান্তিক কৃষককে বিনামূল্যের বীজ প্রদান বাজিতপুরে চালকে হত্যা করে বিভাটেক ছিনতাই

সম্প্রীতি সমাবেশে বক্তাগণ দেশে শিক্ষার উন্নয়নে হিন্দু সমাজের ভূমিকা অসীম

সম্প্রীতি সমাবেশে একজন আবৃত্তি শিল্পী কবিতা আবৃত্তি করছেন -পূর্বকণ্ঠ

সম্প্রীতি সমাবেশে বক্তাগণ
দেশে শিক্ষার উন্নয়নে হিন্দু
সমাজের ভূমিকা অসীম

# নিজস্ব প্রতিবেদক :-

কিশোরগঞ্জে ‘সম্প্রীতির সংগ্রামে আমরা’ শ্লোগান নিয়ে আয়োজিত সম্প্রীতি সমাবেশে বিভিন্ন বক্তা বলেছেন, এদেশ স্বাধীন হয়েছে সকল ধর্মের মানুষের আত্মত্যাগের বিনিময়ে। আর মহান মুক্তিযুদ্ধে সংখ্যানুপাতিক বিচারে সবচেয়ে বিশী আত্মত্যাগ করতে হয়েছে হিন্দু সম্প্রদায়কে। অথচ আজ বিভিন্ন কুচক্রি মহল নিজেরাই নানা উষ্কানি তৈরি করে তাদের ওপর হামলা চালাচ্ছে, তাদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে হামলা করছে, খুন করছে, লুটতরাজ চালাচ্ছে। বক্তাগণ বলেন, বাঙালি জাতিকে শিক্ষিত করার জন্য হিন্দু সম্প্রদায়ের অসীম অবদান রয়েছে। দেশের বিভিন্ন জেলার প্রধান প্রধান শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তারাই প্রতিষ্ঠা করেছে। যেমন কিশোরগঞ্জের সর্ববৃহৎ কলেজ গুরুদয়াল কলেজ, ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজ, রাজধানীর জগন্নাথ কলেজ (বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়), সিলেটের এমসি (মুরারি চাঁদ) কলেজ, খুলনার বিএল (ব্রজলাল) কলেজ, বরিশালের বিএম (ব্রজমোহন) কলেজ, টাঙ্গাইলের কুমুদিনী নামে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, হবিগঞ্জের বৃন্দাবন কলেজসহ দেশের বহু স্কুল-কলেজ হিন্দু সম্প্রদায়ের দানশীল ব্যক্তিরা প্রতিষ্ঠা করেছেন। সেগুলি আজও দেশে আলো ছড়াচ্ছে। তারা আগাধ দেশপ্রেম থেকেই এসব করেছেন। অথচ আজ তাদের ওপর বিভিন্ন কুচক্রি সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী নানা অজুহাতে হামলা চালানোর চেষ্টা করে। ভুয়া ফেসবুক আইডি খুলে উষ্কানিমূলক পোস্ট দিয়ে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা তৈরি করছে। এরা দেশের যুগ যুগের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পরিবেশ নস্যাত করতে চায়। এরা দেশের শান্তি অগ্রগতি নস্যাত করতে চায়। এদের বিরুদ্ধে সকলকে রুখে দাঁড়ানোর জন্য বক্তাগণ আহবান জানিয়েছেন।
বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের দেশব্যাপী কর্মসূচীর অংশ হিসেবে চন্দ্রাবতী আবৃত্তি পরিষদ গতকাল শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে জেলা শহরের সৈয়দ নজরুল ইসলাম চত্বরে এ সমাবেশের আয়োজন করে। আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মম জুয়েলের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সাহিত্য সমালোচক বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন ফারুকী, বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক এমএ গণি, জেলা উদীচীর সভাপতি ফিরোজ উদ্দিন ভূঁইয়া, শহীদ টিটু স্মৃতি পাঠাগারের সম্পাদক ডা. সুশীল কুমার শীল, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আতাউর রহমান খান মিলন, জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোস্তফা কামাল, সাংস্কৃতিক সংগঠক জিয়াউর রহমান, ছড়াকার সদরুল উলা, মহিবুর রহমান, রাকিবুল হান্নান, বাশিরুল আমিন প্রমুখ। সমাবেশে বক্তৃতার ফাঁকে ফাঁকে আবৃত্তিরও আয়োজন রাখা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা নিষেধ!!!