• বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৯:৩৮ পূর্বাহ্ন |
  • English Version
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে নতুন করোনা রোগি ১৩, সুস্থ হলেন ১৯ জন লকডাউন প্রাকৃতিক বিধান কিশোরগঞ্জে করোনা সঙ্কটে বিপর্যস্তদের সঙ্গে অভিনব ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি ভৈরবে এতিম ও পথশিশুদের মাঝে জামা কাপড় ও খাবার বিতরণ করলেন ছাত্রলীগ সভাপতি প্রভা হোসেনপুরে ঝড়ে বিধ্বস্ত কুঁড়ে ঘরটি সংষ্কারের জন্য ঢেউটিন প্রদান কিশোরগঞ্জ ৩৫ জন স্বেচ্ছাসেবী স্বাস্থ্যকর্মীকে আর্থিক ঈদ উপহার পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষ্যে ভৈরব উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজানার ঈদ শুভেচ্ছা হোসেনপুরে আলোকিত সামাজিক সংঘের উদ্যোগে দরিদ্রদের মধ্যে ঈদ সামগ্রী বিতরণ কুলিয়ারচরে রাবেয়া-হামিদ মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার পেলো ১৫০টি পরিবার কিশোরগঞ্জে সুস্থ হলেন ৪০ জন নতুন করোনায় আক্রান্ত ২ জন

ভ্রাম্যমাণ আদালত ও জেলা প্রশাসককে হুমকি, কিশোরগঞ্জে জেলা প্রশাসকের জিডিটাল আইনের মামলায় এক ব্যক্তি কারাগারে

ভ্রাম্যমাণ আদালত ও জেলা প্রশাসককে হুমকি
কিশোরগঞ্জে জেলা প্রশাসকের
জিডিটাল আইনের মামলায়
এক ব্যক্তি কারাগারে

# মোস্তফা কামাল :-

কিশোরগঞ্জ শহরে সড়ক পরিবহন আইনে এক ব্যক্তিকে জরিমানা করায় জেলা প্রশাসক, ভ্রাম্যমাণ আদালত ও পুলিশের বিরুদ্ধে হুমকি, অপপ্রচার ও বিদ্বেষ ছড়ানোসহ বিভিন্ন অভিযোগ এনে জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী সদর মডেল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ অনুযায়ী তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। মামলায় আকিব হৃদয় (২৬) নামে একজনকে পুলিশ শহরের উকিলপাড়া এলাকার বাসা থেকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে। তিনি ‘আনন্দ টিভি’ ও ‘দেশটাইম’ অনলাইন পোর্টালের সাংবাদিক বলে পরিচয় দিয়েছেন।
জেলা প্রশাসনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ২৮ ডিসেম্বর সোমবার দুপুর ২টার দিকে শহরের সার্কিট হাউজের সামনের রাস্তায় সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ অনুযায়ী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইব্রাহিম, মো. জুলহাস হোসেন সৌরভ, মাহমুদুল হাসান ও মো উবায়দুর রহমান সাহেলের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পুলিশের সহায়তা কাজ করছিলেন। বেলা আড়াইটার দিকে শহরের উকিলপাড়ার বাচ্চু খানের ছেলে আকিব হৃদয় (২৬) ও নগুয়া এলাকার মতিউর রহমানের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া হেলমেট ও মাস্কবিহনী অবস্থায় মোটরসাইকেলে যাবার সময় তাদের সড়ক পরিবহন আইনের ৬৬ ধারায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এরপর তাদেরকে কালেক্টরেট ভবনে নিয়ে গেলে পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় ম্যাজিস্ট্রেটদের কক্ষে বিনা অনুমতিতে ঢুকে ভিডিও করতে থাকেন এবং চাকুরিচ্যুতিসহ নানারকম হুমকি প্রদর্শন করতে থাকেন। জরিমানা দিয়ে ছাড়া পেয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে গিয়ে আকিব হৃদয়, মোস্তাফিজুর রহমান ও মনোয়ার হোসেন রনি ভ্রাম্যমাণ আদালত ও জেলা প্রশাসক সম্পর্কে বিভিন্ন কটুক্তি, প্রশাসন ও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা ও জনগণের সঙ্গে সম্প্রীতি বিনষ্টের মত বক্তব্য দেন এবং ‘স্যার’ না বলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত জরিমানা করেছেন বলে প্রচার করেন। তাদের এসব বক্তব্য তিনজনেরই ফেসবুক আইডি থেকে লাইভে প্রচার করা হয় বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।
সদর থানার ওসি মো. আবু বকর সিদ্দিক জানিয়েছেন, সোমবার রাত পৌনে ১২টার সময় জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী নিজে বাদী হয়ে থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর সংশ্লিষ্ট ধারায় আকিব হৃদয়, মোস্তাফিজুর রহমান ও মনোয়ার হোসেন রনির বিরুদ্ধে মামলা (মামলা নং ৩২) করেছেন। মামলায় তদন্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে পরিদর্শক জয়নাল আবেদীনকে। রাত ৩টার সময় আকিব হৃদয়কে তার বাসা থেকে গ্রেফতার করা হলেও অন্য দু’জনকে বাসায় পাওয়া যায়নি। আকিব হৃদয়কে আজ ২৯ ডিসেম্বর মঙ্গলবার দুপুরে সদর কোর্টে সোপর্দ করলে বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শহীদুল ইসলাম তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা নিষেধ!!!