• রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:৩৯ অপরাহ্ন |
  • English Version
শিরোনাম :
মুন্সিগঞ্জে গ্যাস বিস্ফোরণে নিহত বাবা ও দ্ইু শিশুর কিশোরগঞ্জে দাফন সম্পন্ন ভৈরবে শহীদ শেখ ফজলুল হক মনির ৮৩তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন বালক ফাইনালে উঠেছে রাজশাহী-সিলেট বিভাগ বালিকায় ময়মনসিংহ-রংপুর জে. শফিউল্লাহর চিঠি পেয়ে আহতদের চিকিৎসা করেছি আবার সশস্ত্র যুদ্ধও করেছি ….. ডা. আমির হোসেন মুন্সিগঞ্জে গ্যাস বিস্ফোরণে মারা গেছেন কিশোরগঞ্জের কাউসারসহ তার দুই শিশু বঙ্গমাতা সেমিফাইনালে খুলনা ময়মনসিংহ রংপুর এবং রাজশাহী বিভাগ কটিয়াদীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যানের ওপর দুর্বৃত্তের হামলা ভৈরবে প্রাইভেটকারে টিভি চ্যানেলের স্টিকার ব্যবহার করে গাঁজা পাচারকালে আটক ২ কিশোরগঞ্জে প্রতিবন্ধী দিবসের শোভাযাত্রা আলোচনা সভা ভৈরবে মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা

ইসলাহুন নফস বা আত্মশুদ্ধি (৩য় পর্ব) : সংকলনে- ডা. এ.বি সিদ্দিক

অন্তরের রোগ সমূহ থেকে নিজেকে মুক্ত করার নামই হল ইসলাহুন নফস বা আত্মশুদ্ধি। আর অন্তরের রোগ সমূহ থেকে কয়েকটি রোগ সম্পর্কে আমরা গত পর্বে জেনেছিলাম। সেগুলো হলো, সত্যকে অপছন্দ করা, ইবাদতের বেলায় মনের অবাস্তব আকাঙ্খা, কুপ্রবৃত্তির অনুসরণ করা ইত্যাদি। আর এ পর্বেও আমরা আরো কয়েকটি রোগ সম্পর্কে জানব ইনশাআল্লাহ। আর তা হলো:
৪। অন্তরে মন্দ চিন্তা-ভাবনাকে প্রশ্রয় দেওয়া। অন্তরের মারাত্মক একটি রোগ হলো, বিভিন্ন কুচিন্তাকে অন্তরে প্রশ্রয় দেওয়া। কেননা অন্তরের মন্দ চিন্তা-ভাবনা হল পাপাচারে লিপ্ত হওয়ার প্রথম ধাপ। কুভাবনায় লিপ্ত ব্যক্তি যদি শুরুতেই তার মনটাকে নিয়ন্ত্রণ না করতে পারে তাহলে একটি সময় পাপাচারে লিপ্ত হওয়া অবশ্যম্ভাবী হয়ে উঠে। তাই শুরু থেকেই মনের খারাপ চিন্তা-ভাবনাকে প্রতিহত করতে হবে এবং এর জন্য সকল ধরণের বাজে চিন্তা-ভাবনা বর্জন করতে হবে। সর্বদা আল্লাহর যিকর-আযকার করতে হবে। সব জায়গাতে, সব অবস্থাতে মহান আল্লাহ তায়ালার ভয় অন্তরে লালন করতে হবে। মনে রাখতে হবে যে, মহান আল্লাহ রব্বুল আলামীন আমাদের অন্তরের অন্তঃস্থলের গোপন খবরাখবরও রাখেন। পাশাপাশি রাসূল (সা.) এর একটি হাদীস মনে রাখতে হবে। রাসূল (সা.) বলেছেন, নিশ্চয়ই আল্লাহ তায়ালা তোমাদের চেহারা-সুরত ও ধন-সম্পদ দেখেন না। বরং তিনি তোমাদের আমল সমূহ ও অন্তরের প্রতি লক্ষ্য রাখেন। (ইবনে মাজাহ: ৪১৪৩)
৫। দ্বীনি ইলম বা জ্ঞানের মাধ্যমে দুনিয়া তালাশ করা। মানুষের অন্তরের আরেকটি রোগ হলো, দ্বীনি ইলম বা জ্ঞানের মাধ্যমে দুনিয়া উপার্জন করা। ইলমকে মাধ্যম বানিয়ে নেতৃত্ব তালাশ করা, অহংকার ও বড়াইয়ের পথে হাঁটা এবং উদ্ধৃত হওয়া ইত্যাদি। (তবে হ্যাঁ, কেউ যদি মহান আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে ইলম শিক্ষা করে ও অন্যকে শিক্ষা দেয়, বিভিন্নভাবে ইলমের প্রচার প্রসার ঘটায়, আর এর পাশাপাশি কিছু সম্মানী নেয় এটা আলাদা বিষয়। কেননা এখানে মূল উদ্দেশ্য শুধুমাত্র দুনিয়া উপার্জন নয়।) দ্বীনি ইলমের বেলায় সব সময় মনে রাখতে হবে যে, আল্লাহ তায়ালা ইলম প্রদান করে আমাকে অনেক অনুগ্রহ করেছেন। এটি মহান আল্লাহর অনেক বড় একটি নিয়ামত। তাই সব সময় মহান আল্লাহর শোকরিয়া আদায় করা দরকার। কিন্তু আমার পক্ষে যথাযথভাবে শোকরিয়া আদায় করা সম্ভব হইতেছে না। ইলমের হক্ব আমি সঠিকভাবে আদায় করতে পারতেছি না। এরকমভাবে নিজেকে ছোট মনে করতে হবে এবং বিনয় অবলম্বন করতে হবে। কেননা হাদীসে এসেছে যে, যে ব্যক্তি আলেমদের সাথে প্রতিযোগিতা করার জন্য কিংবা মূর্খদের সাথে তর্ক করার জন্য অথবা মানুষের দৃষ্টি নিজের দিকে নিবদ্ধ করতে ইলম অন্বেষণ করবে আল্লাহ তায়ালা তাকে জাহান্নামে প্রবেশ করাবেন। (ইবনে মাজাহ: ২৬০)
৬। অন্যের দোষ তালাশ করা। মানুষের একটি মন্দ স্বভাব হলো, সে নিজের দোষ দেখে না। কেবল অন্যের দোষই তার নজরে পড়ে। অথচ রাসূল (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি তার মুসলিম ভাইয়ের গোপন দোষ খুঁজে খুঁজে বের করে, আল্লাহ তায়ালাও তার দোষ খুঁজে খুঁজে বের করবেন এবং তা জনসমক্ষে প্রকাশ করে তাকে অপমানিত করবেন। যদিও সে আপন ঘরের মধ্যে অথবা উটের হাওদার ভেতরে অবস্থান করে। (তিরমিযি: ২০৩২)
৭। নিজেকে নিরাপদ মনে করা। শয়তানের চক্রান্ত, কুমন্ত্রণা আর ধোঁকা থেকে নিজেকে নিরাপদ ভাবাটাও অন্তরের একটি সমস্যা। কেননা আল্লাহ রব্বুল আলামীন বলেছেন, শয়তান তোমাদের প্রকাশ্য শত্রু, সুতরাং তোমরা তাকে শত্রু হিসাবেই গ্রহণ কর। সে তো তার দলবলকে এ জন্য আহবান করে যে, ওরা যেন জাহান্নামী হয়। (সূরা ফাতির: ৬)
কাজেই নিজেকে শয়তান থেকে নিরাপদ মনে করা যাবে না। বরং সব ধরণের ইবাদত বন্দেগী বিশুদ্ধতার সাথে পালন করতে হবে এবং আল্লাহর নিকট সব সময় দোআ করতে হবে যেন তিনি দয়া করেন। আল্লাহ তায়ালা আমাদের সবাইকে অন্তরের রোগ সমূহ থেকে মুক্তি দান করুন। আমীন
প্রচারে : আসুন কুরআন পড়ি, সফল জীবন গড়ি।
আল-শেফা জেনারেল হাসপাতাল (প্রা.), কমলপুর, ভৈরব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা নিষেধ!!!