• বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৯:৪৩ পূর্বাহ্ন |
  • English Version
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে নতুন করোনা রোগি ১৩, সুস্থ হলেন ১৯ জন লকডাউন প্রাকৃতিক বিধান কিশোরগঞ্জে করোনা সঙ্কটে বিপর্যস্তদের সঙ্গে অভিনব ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি ভৈরবে এতিম ও পথশিশুদের মাঝে জামা কাপড় ও খাবার বিতরণ করলেন ছাত্রলীগ সভাপতি প্রভা হোসেনপুরে ঝড়ে বিধ্বস্ত কুঁড়ে ঘরটি সংষ্কারের জন্য ঢেউটিন প্রদান কিশোরগঞ্জ ৩৫ জন স্বেচ্ছাসেবী স্বাস্থ্যকর্মীকে আর্থিক ঈদ উপহার পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষ্যে ভৈরব উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজানার ঈদ শুভেচ্ছা হোসেনপুরে আলোকিত সামাজিক সংঘের উদ্যোগে দরিদ্রদের মধ্যে ঈদ সামগ্রী বিতরণ কুলিয়ারচরে রাবেয়া-হামিদ মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার পেলো ১৫০টি পরিবার কিশোরগঞ্জে সুস্থ হলেন ৪০ জন নতুন করোনায় আক্রান্ত ২ জন

ছিয়াম কাদের উপর ফরয : সংকলনে : ডা. এ.বি সিদ্দিক

ছিয়াম কাদের উপর ফরয

সংকলনে : ডা. এ.বি সিদ্দিক

কুরআন-সুন্নাহর আলোকে ছিয়ামের পরিচয়: ছিয়াম শব্দটি আরবী। এর শাব্দিক অর্থ হল, কোন কিছু থেকে বিরত থাকা, দূরে থাকা, কোন কিছুকে পরিত্যাগ করা, সংযত হওয়া ইত্যাদি। ইসলামী শরীয়তের পরিভাষায়, আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের সন্তুষ্টি অর্জনের উদ্দেশ্যে ছুবহে ছাদিক হতে সূর্যাস্ত পর্যন্ত ছিয়াম রাখার নিয়তে সব ধরণের পানাহার, যৌন সম্ভোগ এবং অপ্রয়োজনীয়, অবাঞ্ছিত ও অশালীন কার্যকলাপসহ ছিয়াম ভঙ্গের সকল কারণ সমূহ হতে বিরত থাকাকে ছিয়াম বলে। ছিয়াম পালন করা ইসলামের পাঁচটি রুকনের অন্যতম একটি রুকন। কুরআন, হাদীস ও ইজমা দ্বারা ছিয়াম পালন করা ফরয বলে প্রমাণিত হয়েছে। কেউ ইহা অস্বীকার করলে সে কাফির হিসাবে পরিগণিত হবে। কাজেই প্রত্যেক প্রাপ্ত বয়স্ক, জ্ঞানসম্পন্ন, সুস্থ ও মুকীম মুসলিমের উপর রমযানের একমাস ছিয়াম পালন করা ফরয তথা বাধ্যতামূলক। মহান আল্লাহ বলেন,
হে ঈমানদারগণ! তোমাদের উপর ছিয়াম ফরয করা হয়েছে, যেমনভাবে তোমাদের পূর্ববর্তীদের উপরও ফরয করা হয়েছিল। সম্ভবত: এর ফলে তোমরা তাক্বওয়া অর্জন করতে পারবে। (বাক্বারাহ: ১৮৩)
আবু হুরায়রা (রা.) হতে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি ঈমানের সাথে ও নেকী অর্জনের আশায় রমযানের ছিয়াম রাখবে, আল্লাহ তার অতীতের সকল (ছগীরা) গুনাহ মাফ করে দিবেন। (বুখারী: ২০১৪, মুসলিম: ১৮১৫)
উল্লেখিত আয়াত এবং হাদীসের মাধ্যমে যেমনিভাবে ছিয়ামের বিধান ও ফযীলত সাব্যস্ত হয়েছে, ঠিক তেমনিভাবে ছিয়াম ফরয হওয়ার এবং এর ফযীলত পওয়ার অন্যতম একটি শর্তও এখানে উল্লেখ করা হয়েছে। আর তা হল ঈমান। অর্থাৎ ছিয়াম কেবল ঈমানদারদের জন্যই। যেই মানুষটা ঈমানের শর্ত ও রুকন পূরণ করে ঈমান ভঙ্গের সকল কারণ থেকে বিরত থেকে ছিয়ামের হক্ব যথাযথভাবে আদায় করতে পারে, সেই কেবল ছিয়ামের ফযীলত পাবে। অন্যথায়, ছিয়াম রেখেও কোন লাভ হবে না।
বাস্তবিক প্রেক্ষাপট: বর্তমান মুসলমানদের অবস্থা একটু পর্যবেক্ষণ করলে দেখা যায় যে, আজকে তারা ছিয়ামের ফরযিয়তকে স্বীকার করে পবিত্র রমযান মাস ব্যাপী ছিয়াম পালন করে থাকে এবং এর ফযীলত পাবে বলে তারা আশাও করে থাকে। কিন্তু আশ্চর্যজনক হলেও সত্য যে, ছিয়াম শুদ্ধ হওয়ার এবং এর ফযীলত পাওয়ার পূর্বশর্ত ঈমানের ব্যাপারে তারা একেবারেই উদাসীন। আজকে তারা জানেনা ঈমানের শর্ত কী? ঈমানের রুকন বা স্তম্ভ কী? ঈমান ভঙ্গের কারণই বা কী? বেশীরভাগ মুসলমানই এই ধারণা করে যে, আমি মুসলমান পরিবারে জন্ম নিয়েছি, অতএব আমি একজন মুসলিম। আমি কালিমায়ে তইয়্যিবা বলতে পারি, অতএব আমি একজন মুমিন। অথচ সালাত এবং ছিয়ামের মত ঈমানের শর্ত আছে, রুকন আছে এবং অযু ভঙ্গের কারণের মত, সালাত ভঙ্গের কারণের মত, ছিয়াম ভঙ্গের কারণের মত, ঈমান ভঙ্গেরও যে কারণ আছে তারা তা জানে-ই না। কখন যে ঈমান ভঙ্গের কারণ সংঘটিত হয়ে ভেতর থেকে ঈমানটা চলে যায় তারা তা বুঝেই না। এক কথায় ৬০/৭০ বৎসর যাবত সালাত পড়লেও, পবিত্র রমযান মাসের ছিয়াম রাখলেও, ঈমানের ব্যাপারে তারা একেবারেই গাফিল। অথচ ছিয়াম শুদ্ধ হওয়ার এবং এর ফযীলত পাওয়ার পূর্ব শর্ত হল ঈমান থাকা।
আমাদের করণীয়: হে মুসলিম ভাই ও বোন! পূর্ণাঙ্গ জীবন ব্যবস্থা ইসলামের মূল ভিত্তি সমূহের মধ্য থেকে অন্যতম একটি ভিত্তি হল ছিয়াম। ইবাদত হিসাবে ছিয়ামের স্থান অনেক উর্ধ্বে। ছিয়াম মানব জীবনের গুরুত্বপূর্ণ গুণাবলী অর্জনের এক অন্যতম প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা। এটি আত্মসংযম, আত্মশুদ্ধি আর তাক্বওয়া অর্জনের অন্যতম একটি মাধ্যম। আমরা যদি ছিয়ামের এই শিক্ষার বাস্তব রূপ আমাদের জীবনে ফুটিয়ে তুলতে চাই, ছিয়াম পালনের উদ্দেশ্য অর্জনে সফল হতে চাই, ইহলৌকিক কল্যাণ এবং পরকালীন মুক্তি লাভ করে ধন্য হতে চাই, তাহলে সর্ব প্রথম আমাদেরকে ঈমানের জ্ঞান অর্জন করে আমাদের ঈমানকে ঠিক করতে হবে এবং ঈমান ভঙ্গের সকল কারণ সমূহ থেকে নিজেদেরকে মুক্ত করতে হবে। এর পাশাপাশি পবিত্র রমযানের ছিয়াম পালন করা অবস্থায় ছিয়ামের সকল হক্ব যথাযথভাবে আদায় করতে হবে। তবেই ছিয়ামের ফযীলত পাওয়া যাবে ইনশাআল্লাহ। আল্লাহ আমাদের সবাইকে ছিয়ামের ফযীলত পাওয়ার তাওফীক দিন। আমীন
প্রচারে : আসুন কুরআন পড়ি, সফল জীবন গড়ি।
আল-শেফা জেনারেল হাসপাতাল (প্রা.), ভৈরব।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি করা নিষেধ!!!